ভিটামিন সি জাতীয় খাবার

ভিটামিন সি জাতীয় খাবার গুলো সম্পর্কে জানুন

ভিটামিন সি আমাদের শরীরের জন্য খুবই উপকারী। আজকে আমরা ভিটামিন সি জাতীয় খাবার গুলো সম্পরকে জানবো।  ভিটামিন-সি শরীরের টিস্যুর যত্ন নেওয়া, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার উন্নতি সহ অনেক কিছু করে। কিন্তু আপনি কি জানেন, আমাদের শরীর নিজে থেকে ভিটামিন সি তৈরি করতে পারে না। আমরা যে খাবার খাই তা থেকে এটি আমাদের শরীরে প্রবেশ করে।

ভিটামিন সি এর কাজ কি?

এই ভিটামিন সি সবচেয়ে শক্তিশালী অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। এটি ক্ষতিকারক পদার্থ থেকে শরীরকে রক্ষা করে। ভিটামিন সি বিশেষ করে চোখের লেন্স, কোষের নিউক্লিয়াস, ত্বক এবং হাড়ের কোলাজেন রক্ষা করে। ভিটামিন-সি মস্তিষ্কের স্বাস্থ্য বা রক্তে আয়রন শোষণ করে থাকে। এবং মস্তিষ্কে নিউরোট্রান্সমিটারের চলাচল ও তথ্য আদান-প্রদানে করতে সাহায্য করে। 

ভিটামিন সি এর অভাবে কি হয়

যেহেতু ভিটামিন-সি একটি গুরুত্বপূর্ণ পুষ্টি উপাদান, তাই এর অভাবে বিভিন্ন রোগ ও শারীরিক সমস্যা হতে পারে এবং তাদের বিভিন্ন লক্ষণ ও উপসর্গ থাকতে পারে। উদাহরণ স্বরূপ:

  • অসুস্থ বোধ করা
  • ক্লান্তি
  • অলসতা
  • তন্দ্রা
  • ক্ষত ধীরে ধীরে শুকায়
  • নিউরোসিস
  • জ্বর, খিঁচুনি ইত্যাদি

যৌবন শক্তি বৃদ্ধির খাবার দুধ-রসুনের উপকারিতা

এই উপসর্গ গুলো আপনার শরীরে থাকলে বুঝে নিবেন আপনার ভিটামিন-সি এর অভাব রয়েছে। এবং ভিটামিন সি এর ঘাটতি পূরণ করতে নিয়মিত ভিটামিন সি জাতীয় খাবার গুলো খাবেন।

ভিটামিন সি এর দৈনিক প্রয়োজনীয় পরিমাণ

 

বয়স

নারী

পুরুষ

৭ মাস ১ বছর

৪০ মিলিগ্রাম

৪০ মিলিগ্রাম

১ – ৩ বছর ১৫ মিলিগ্রাম

১৫ মিলিগ্রাম

৪ – ৮ বছর

২৫ মিলিগ্রাম ২৫ মিলিগ্রাম
৯ – ১৩ বছর ৪৫ মিলিগ্রাম

৪৫ মিলিগ্রাম

১৪ – ১৮ বছর

৭৫ মিলিগ্রাম ৬৫ মিলিগ্রাম
১৯ – বয়স্ক ৯০ মিলিগ্রাম

৭৫ মিলিগ্রাম

গর্ভবতী

৮৫ মিলিগ্রাম  
স্তন্যদানকারী মায়েদের

১২৫ মিলিগ্রাম

 

ভিটামিন সি জাতীয় খাবার কি কি?

ভিটামিন সি জাতীয় খাবার
ভিটামিন সি জাতীয় খাবার

আমরা ভিটামিন সি জাতীয় খাবার গুলোর তালিকাকে তাদের গুণমান এবং বৈশিষ্ট্যের ভিত্তিতে দুটি ভাগে ভাগ করেছি। 

  1. ভিটামিন-সি জাতীয় ফল
  2. ভিটামিন-সি জাতীয় সবজি

ক্যালসিয়াম জাতীয় খাবার কি কি জেনে নিন

ভিটামিন সি জাতীয় ফল কি কি

ভিটামিন সি জাতীয় ফল কমলা, লেবু, জলপাই, মাল্টা, স্ট্রবেরি, আঙ্গুর, বরই, জাম্বুরা, আমলকি, পাকা পেঁপে, পেয়ারা, আনারস, তরমুজ, আম, লিচু এই ফল গুলোর মধ্যে প্রচুর পরিমান ভিটামিন-সি পাওয়া যায়।

ফল গ্রাম

পরিমাণ

কমলা

১০০ ৭.৮ মিলিগ্রাম
লেবু ১০০

৫২.২ মিলিগ্রাম

আমলকী

১০০ ৪৭৮ মিলিগ্রাম
স্ট্রবেরি ১০০

৫৬ মিলিগ্রাম

পেয়ারা

১০০ ২২৮ মিলিগ্রাম
কলা ১০০

৫৩  মিলিগ্রাম

পাকা পেঁপে

১০০ ৬১  মিলিগ্রাম
আঙ্গুর ১০০

৪ মিলিগ্রাম

আনারস

১০০ ৪৭.৮ মিলিগ্রাম
তরমুজ ১০০

৮.১ মিলিগ্রাম

ভিটামিন-সি এর ঘাটতি পূরণ করতে নিয়মিত এই ফলগুলো খাবেন।

ভিটামিন সি জাতীয় সবজি

ভিটামিন-সি জাতীয় সবজি সরিষা শাক, পালং শাক, কাঁচা মরিচ, ফুলকপি, বাধা কপি,  মুলা, গাজর, টমেটো, ক্যাপসিকাম, ধনেপাতা ও পুদিনা পাতা এই সব যেগুলোতে প্রচুর পরিমাণ ভিটামিন সি থাকে।

সবজি

গ্রাম

পরিমান

কাঁচা মরিচ

১০০ ২৪২.৫ মিলিগ্রাম
টমেটো ১০০

২৩ মিলিগ্রাম

বাধা কপি

১০০ ৩৬.৬ মিলিগ্রাম
পালং শাক ১০০

২৬.৫ মিলিগ্রাম

মিষ্টি কুমডা

১০০ ৯ মিলিগ্রাম
ব্রকোলি ১০০

৮৯ মিলিগ্রাম

ভিটামিন সি এর ঘাটতি পূরণ করতে নিয়মিত এই সবজিগুলো খাবেন। ভিটামিন-সি সমৃদ্ধ খাবার অত্যধিক তাপে এবং দীর্ঘ সময় ধরে রান্না করলে তা নষ্ট হয়ে যায়। তাই ভিটামিন-সি যুক্ত সবুজ শাকসবজি কম সেদ্ধ করে খেতে হবে।

আপনার জন্নঃ আয়রন সমৃদ্ধ খাবার তালিকা জেনে নিন

ভিটামিন সি জাতীয় খাবার এর উপকারিতাঃ

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়ঃ

এটি বিভিন্ন ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণের বিরুদ্ধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। ভাইরাসজনিত রোগের বিরুদ্ধেও এর দারুণ অবদান রয়েছে। ভিটামিন সি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণঃ

ভিটামিন সি আমাদের শরীরে রক্ত চলাচলে অনেক সাহায্য করে। আমাদের হৃৎপিণ্ড থেকে রক্তনালীগুলো শরীরের প্রতিটি অংশে পৌঁছাতে সাহায্য করে। তাই নিয়মিত ভিটামিন সি জাতীয় খাবার গ্রহণ করলে আমাদের রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকে এবং উচ্চ রক্তচাপের প্রবণতা অনেকটাই কমে যায়।

শারীরিক গঠনঃ

আমাদের শরীর ভিটামিন সি ছাড়া কোলাজেন নামক প্রোটিন তৈরি করতে পারে না। এই কোলাজেন আমাদের শরীরের হাড়, পেশী, মাংস এমনকি চামড়া তৈরিতে অনেক সাহায্য করে। তাই আমাদের শরীরের গঠন ঠিক রাখতে প্রতিদিন ভিটামিন সি জাতীয় খাবার গ্রহণ করা খুবই জরুরি।

মস্তিষ্কের বিকাশঃ

ভিটামিন সি পর্যাপ্ত পরিমাণে গ্রহণ আমাদের মস্তিষ্কের বিকাশে সাহায্য করে যা আমাদের চিন্তাভাবনা নিয়ন্ত্রণে রাখে এবং আমাদের মানসিক স্বাস্থ্যের উন্নতি করে। যা আমাদের মনোবল বাড়াতে অনেক সাহায্য করে।

অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের পরিমাণঃ

ভিটামিন সি জাতীয় খাবার নিয়মিত খেলে আমাদের শরীরে অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের পরিমাণ বেড়ে যায়, যার ফলে আমাদের শরীর থেকে বিষাক্ত পদার্থ বের হয়ে যায়। আমরা চোখের রোগে কম হয় এবং সর্দি, কাশি, কফ এবং জ্বরে কম হয়।

ভিটামিন সি জাতীয় খাবার নিয়ে সচারচার জিজ্ঞাসিত প্রশ্ন?

সবচেয়ে বেশি ভিটামিন সি সমৃদ্ধ ফল কোনটি?

অস্ট্রেলিয়ায় কাকাডু প্লাম নামে এক ধরনের ফল পাওয়া যায়। 100 গ্রাম কাকাডু বরই ফলের মধ্যে 2907 মিলিগ্রাম ভিটামিন সি থাকে। তবে আমাদের এশিয়া মহাদেশে বিভিন্ন দেশে অনেক ফল পাওয়া যায়, যেগুলোতে ভিটামিন সি-এর পরিমাণ অনেক বেশি। যেমন আমলকি, লেবু, কমলা, কামরাঙ্গা বা পাকা পেঁপে, আনারস ইত্যাদি।

আরও জানুনঃ সেক্সে বৃদ্ধির খাবার কি। সেক্সে বৃদ্ধির ১০ টি প্রধান খাবার সম্পর্কে জানুন

আমলকিতে ভিটামিন সি এর পরিমাণ কত?

আমলকিতে ভিটামিন-সি এর পরিমাণ অনেক বেশি। ১০০ গ্রাম আমলকীতে ৪৭৮ লিমিগ্রাম ভিটামিন সি থাকে।

শেষ কথা

ভিটামিন সি আমাদের জন্য অপরিহার্য এতে কোন সন্দেহ নেই। যাইহোক, উপরে দেওয়া ভিটামিন সি জাতীয় খাবার গুলতে প্রচুর পরিমান ভিটামিন সি থাকে। এবং ভিটামিন সি এর ঘাটতি পূরণ করতে নিয়মিত উপরে দেওয়া ভিটামিন সি জাতীয় খাবার গুলো খাবেন। এবং যেকোনো সাপ্লিমেন্ট গ্রহণের আগে আমাদের অবশ্যই একজন পুষ্টি বিশেষজ্ঞ বা ডাক্তারের পরামর্শ নিতে হবে।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

twenty − two =

Scroll to Top